কিভাবে খুলবেন একটি জিমেইল একাউন্ট -how to create a Gmail account

প্রাচীন কালের মানুষের যোগাযোগ মাধ্যম ছিল খুবই অনুন্নত। একে অপরের সাথে চাইলেই যোগাযোগ করতে পারতো না।এবং কাউকে কোন খবর দিতে হলে লেগে যেত অনেক সময়।এবং তৎক্ষণাৎ কোন খবরও সে তো কয়েক সপ্তাহ বা মাস পরে। আমাদের যোগাযোগ ব্যবস্থা এক দিনেই এত অগ্রগতি লাভ করেনি এটি ক্রমান্বয় এবং ধীরে ধীরে উন্নতির দিকে ধাবিত হয়েছে।
বর্তমান সময়ে মানুষের সাথে যোগাযোগ করতে এখন আর অনেক দিন সময় লাগে না। সময় লাগে মাত্র কয়েক সেকেন্ড। মানুষ প্রতি মুহূর্তে প্রিয়জনের খোঁজ খবর নিতে পারছে। আরে সফল হয়েছে শুধুমাত্র আমাদের আধুনিক প্রযুক্তির জন্য।মাত্র কয়েক বছর আগেও যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম ছিল চিঠি। কিন্তু বর্তমান  সময়ে মানুষ চিঠি ব্যবহার হয়তো ভুলেই গিয়েছে। চিঠি বদলের এসেছে মোবাইল ফোন। আরো কত সুবিধা। এখন দেশের কত লোক সবাই ব্যবহার করে ইমেইল। আমাদের অনেকের ইমেইল একাউন্ট আছে। আবার অনেকের নাই। ইমেইল এর ভিতরে সর্বাধিক জনপ্রিয় হচ্ছে গুগলের জিমেইল। এটি ইমেইল সেবা প্রদানের মাধ্যম একটি।
আজ আমরা শিখব কিভাবে একটি জিমেইল একাউন্ট খুলতে হয়-How to make a Gmail account-
Step-1: একটি জিমেইল একাউন্ট খুলতে প্রথমে নিচের লিঙ্কে যান-জিমেইল তৈরি করতে এই লিংকে যান👆
 

Step-2: নতুন অ্যাকাউন্ট তৈরি করুন লেখাতে ক্লিক করুন। দেখবেন একটি পপআপ আসছে  সেখানে লেখা আছে। আমার জন্য  এবং আরেকটি অপশন এর লেখা আছে আমার ব্যবসা ম্যানেজ করার জন্য।  আপনি যদি আপনার নিজের জন্য অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে চান তাহলে আমার জন্য লেখা টি সিলেক্ট করুন।
 
Step-3: একটি রেজিস্ট্রেশন ফরম আসবে সেটিতে প্রথম ঘরে আপনার নাম, দ্বিতীয় ঘরে আপনার পদবী,তৃতীয় ঘরে আপনি যে এড্রেস টি দিয়ে মেইল তৈরি করতে চান সেটি দিন।অর্থাৎ যদি আপনার নাম অনুসারে আপনি ইমেইল এড্রেস তৈরি করতে চান তাহলে আপনার নাম দিন।এবং সাথে কয়েকটা সংখ্যার যোগ করে দিন।
কারণ আপনার নামে অ্যাড্রেস এভেইলএবল নাও থাকতে পারে। তাই সাথে দুই তিনটি সংখ্যা যুক্ত করে দিলে খুব সহজেই ইমেইল এড্রেস  তৈরি হয়ে যাবে।উদাহরণস্বরুপঃgganbitan1234@gmail.com চতুর্থ ঘরে আপনার পাসওয়ার্ডটি দিন পাসওয়ার্ডটি অবশ্যই অক্ষর এবং নম্বর এর সমন্বয় দিবেন।
উদাহরণস্বরূপঃAbcdefg1234
পঞ্চম ঘরে পাসওয়ার্ডটি আবার দিন।
এবং পরবর্তী লেখাতে ক্লিক করুন।

 
Step-4:আপনার সামনে একটি মোবাইল নম্বর ভেরিফিকেশনের একটি পেজ আসবে।আবার এই পেজটি নাও আসতে পারে।পেজটি না আসলে ভেরিফাই করার দরকার নেই।আর আসলে আপনার ফোন নম্বরটি দিন।এবং পরবর্তী অপশনটি ক্লিক করুন।
 
Step-5: আপনার নম্বরে একটি কোড যাবে ছয় সংখ্যার।কোডটি এখানে দিন।এবং পরবর্তী লেখায় ক্লিক করুন।
 
Step-6: প্রথম বক্সে আপনি যে নম্বরটি রিকভারি নম্বর হিসেবে ব্যবহার করতে চান সেটি দিন। দ্বিতীয় বলছে আপনার অন্য কোন ইমেইল একাউন্ট থাকলে সেটি রিকভারি ইমেইল হিসেবে দিতে পারেন। এরপরের বক্সে আপনার জন্ম তারিখ সিলেক্ট করে দিন। তারপরে আপনার জেন্ডার সিলেক্ট করুন। এবং পরবর্তী লেখাতে ক্লিক করুন। 

Step-7:এরপরে আপনার সামনে প্রাইভেসি পলিসি পেজ আসবে।এটি নিচের দিকে স্ক্রল করে আপনি আমি সম্মত লেখাতে ক্লিক করুন। তাহলে আপনার একটি জিমেইল একাউন্ট তৈরি হয়ে যাবে।
আপনার ইমেইলটি তৈরি হয়ে গেছে এখন আপনি এটি বিভিন্ন জন কে মেইল করার ক্ষেত্রে ছাড়াও বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করতে পারবেন। কারণ বর্তমানে ইন্টারনেট জগতে বিভিন্ন কাজ করতে জিমেইল এর প্রয়োজন পড়ে।

সুন্দর একটি ফেসবুক পেজ গ্যাজেট নিয়ে নিন আপনার ব্লগের জন্য -How To add a beautiful Facebook page gadget in my blog

আমরা সবাই জানে ফেসবুক পেইজ কি।ফেসবুক ফেসবুক চালান একটা জিনিস যার মাধ্যমে বিভিন্ন প্রোডাক্ট এবং বিভিন্ন কিছু প্রমোট করতে পারি। ব্লগিংয়ের ক্ষেত্রে ফেসবুক পেজ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। ব্লগিংয়ের ক্ষেত্রে ভিজিটরই হচ্ছে ব্লগের প্রাণ। আর ফেসবুক পেজের মাধ্যমে অনেক পরিমান ভিজিটর পাওয়া সম্ভব হয় ব্লগে।প্রত্যেকেরই ব্লগের জন্য ফেসবুক পেজ রয়েছে।
আমি আজ দেখাব কিভাবে আপনারা আপনাদের ব্লগের সুন্দর একটি ফেসবুক পেইজ গ্যাজেট যুক্ত করবেন।
create a awesome Facebook page gadget 
প্রথমে দেখে নেই ফেসবুক পেজ গ্যাজেটটি দেখতে কি রকম হবে -
Facebook page timeline gadget 

লাইভ ডেমো আমাদের সাইটেই রয়েছে!
তাহলে চলুন দেখে নেয়া যাক কিভাবে যুক্ত করবেন এই ফেসবুক পেজ টাইমলাইন গ্যাজেটটি আপনার ব্লগে -
প্রথমে আপনার পেজ এর লিংকটি কপি করে রাখুন।কারণ আপনার পেজের লিঙ্ক টি প্রয়োজন পড়বে। গেজেটের স্ক্রিপ্ট তৈরি করতে।
⏩গ্যাজেটটির স্ক্রিপ্ট টি তৈরি করতে এই লিঙ্কে যান👆
⏩লিংকটিতে প্রবেশ করলে পরে আপনার সামনে একটি পেজ আসবে,
 মার্ক করা বক্সের যে সকল কিছু লেখা আছে সব গুলো কেটে দিন। এবং আপনার পেজের লিঙ্ক টি এখানে পেস্ট করে দিন।
⏩লিংকটি পেস্ট করা হয়ে গেলে স্ক্রল করে একটু নিচের দিকে যান-
দেখবেন গেট কোড নামক একটি বাটন আছে। সেটিতে ক্লিক করলেই আপনার সামনে একটি এইচটিএমএল জাভাস্ক্রিপ্ট কোড সম্বলিত পপ আপ আসবে।
⏩পপ আপ দেখতে ঠিক এ রকম হবে-

এবার বক্স থেকে কোডগুলো কপি করে রাখুন যেকোনো একটি করতে হবে পড়লেই হবে আপনি ২য় বক্স এর কোড কপি করুন।
কোডগুলো কপি করা হয়ে গেলে এই সাইটের কাজ আপনার শেষ। আপনি আপনার ব্লগার ড্যাশবোর্ডে চলে যান।
⏩আপনার ব্লগের কন্ট্রোল প্যানেল থেকে লেআউট অপশনটি সিলেক্ট করুন ⏩যে স্থানে আপনি ফেসবুক পেজ টাইমলাইন গেজেট টি যুক্ত  করবেন সেখানে গেজেট নামক একটি অপশন আছে। সেটি সিলেক্ট করুন⏩একটি এইচটিএমএল জাভাস্ক্রিপ্ট গ্যাজেট নিন।এবং গ্যাসের টিভি বক্সে আপনার কপি করা স্ক্রিপ্ট বা কোড গুলো পেস্ট করে দিন। এস করা হয়ে গেলে এবার সেভ বাটনে ক্লিক করুন।
আপনার ব্লগে একটি ফেসবুক পেজ টাইম অ্যান্ড গ্যাজেট যুক্ত হয়ে গিয়েছে। আপনার ব্লগে গিয়ে দেখুন একটি ঠিকঠাক কাজ করছে কিনা।
🔴ফেসবুক সেই স্টাইল অ্যান্ড গেজেট যুক্ত করার ফলে আপনার ব্লগের সৌন্দর্য যেমন বৃদ্ধি পেয়েছে। তেমনি আপনার ব্লগের সাথে সাথে আপনার ফেসবুক পেজের ও পরিচিতি বৃদ্ধি পাচ্ছে। ভিজিটর চাইলে এখান থেকে সরাসরি আপনার ফেসবুক পেজের পোস্টগুলো দেখতে পারবে। লাইক কমেন্ট করতে পারবে। এছাড়াও আপনার পেইজে লাইক প্রদান করতে পারবে।এর জন্য তাকে আলাদা করে আপনার ফেসবুক পেজে প্রবেশ করতে হবে না।