বর্তমান সময়ে করোনা মহামারী (Covid-19) এর কারনে স্কুল কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকার কারনে এবং সামজিক দুরত্ব বজায় রাখার স্বার্থে অনেক মানুষের সাথে সরাসরি একসাথে যোগাযোগ বা একজায়গায় জরো হয়ে আলাপচারিতা সম্ভব নয়। এ কারনেই স্কুল কলেজ সকল কিছুই বহুদিন যাবৎ বন্ধ ছিল। কিন্তু জীবন তো থেকে থাকে না! তাই মানুষ সাহায্য নিয়েছে প্রযুক্তির। মানুষ প্রযুক্তির সাহায্য নিয়ে একসাথে অনেক জন মিলে মিটিং বা আলোচনা করার সুবিধা গ্রহন করছে। যার নাম আমরা ভিডিও কনফারেন্সিং  (Video Conferencing) সিস্টেম বলে জানি! আসুন জানি আসলে এই ভিডিও কনফারেন্সিং  (Video Conferencing) কি বা কাকে বলে এবং এর সুবিধা গুলো কি কি ও কয়েকটি জনপ্রিয় ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপ সম্পর্কে জেনে নেই!

ভিডিও কনফারেন্স

ভিডিও কনফারেন্সিং কি বা কাকে বলে? ভিডিও কনফারেন্সিং (Video Conferencing) হলাে ইন্টারনেট নির্ভর একটি অত্যাধুনিক টেলিযােগাযােগ ব্যবস্থা। যে কোনাে ভৌগােলিক দূরত্বে অবস্থানকারী একাধিক ব্যক্তিবর্গের মধ্যে টেলি-কমিউনিকেশন প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে সংঘটিত যে যােগাযােগ ব্যবস্থায় কথা বলার পাশাপশি অংশগ্রহণকারী ব্যক্তিবর্গ ভিডিওর মাধ্যমে পরস্পরকে সরাসরি প্রত্যক্ষ করতে পারেন, তাকে ভিডিও কনফারেন্সিং(Video Conferencing) বলে।

ভিডিও কনফারেন্সিং এর জন্য প্রয়ােজন ওয়েবক্যাম, ইন্টারনেট কানেকশন এবং স্পিকার সহ প্রয়ােজনীয় সফটওয়্যার (স্কাইপি, ভাইবার, হােয়াটসআপ, ইমাে, ম্যাসেঞ্জার ইত্যাদি)। বর্তমানে ভিডিও কনফারেন্সিং ব্যবসায়- বাণিজ্য ছাড়াও শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। যােগাযােগের ক্ষেত্রে এটি একটি অতি আধুনিক, দ্রুততম এবং কার্যকর প্রযুক্তি হিসেবে বর্তমানে অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রায়শই ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন অংশের সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে সম্মেলন কিংবা কোনাে সরকারি স্থাপনা উদ্ভাবন করেন।

ভিডিও কনফারেন্সিং প্রযুক্তির গুরুত্বপূর্ণ সুবিধা গুলাে হচ্ছে—

  • যে কোনাে ভৌগােলিক দূরত্ব থেকে একাধিক ব্যক্তির মধ্যে একেবারে মুখােমুখি সাক্ষাৎ-এর ন্যায় বার্তালাপ (লাইভ ভিডিও যােগাযােগ) সম্ভব, যা ব্যক্তির সময় ও ভ্রমণ ব্যয় ব্যাপকভাবে সাশ্রয় করে।
  • যে কোনাে ভৌগােলিক দূরত্বে থেকে যে কোনাে সভা, সমাবেশ, সরকারি কর্মকাণ্ড, অফিসিয়াল মিটিং, রাজনৈতিক কর্মসূচিসহ যে কোনাে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা বা বক্তব্য প্রদান করা সম্ভব।
  • প্রত্যন্ত বা দুর্গম এলাকায় অবস্থান করেও বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের চিকিৎসা সেবা, উন্নত শিক্ষাসহ আরও বিভিন্ন সেবা গ্রহণ করা যায়।
  • ব্যক্তিগত, পারিবারিক বা সামাজিক সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক রক্ষায় কার্যকরী ভূমিকা পালন।
  • যে কোনাে ভৌগােলিক দূরত্বে থেকে নিজ ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের কর্মপরিবেশ অবলােকন, কর্মীদের মনিটরিং, জরুরি অফিসিয়াল সাক্ষাৎ সহ যে কোনাে ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করা সম্ভব।

বর্তমান সময়ের কয়েকটি জনপ্রিয় ভিডিও কনফারেন্সিং(Video Conferencing) অ্যাপ:

Zoom (জুম): জুম হলাে বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন ভিডিও মিটিং-এর একটি প্লাটফর্ম। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জুম ভিডিও কমিউনিকেশন্স ইঙ্ক, প্রতিষ্ঠান কর্তৃক তৈরিকৃত এ কমিউনিকেশন সফটওয়্যারটি ক্লাউড ভিত্তিক পিয়ার-টু-পিয়ার প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে ভিডিও টেলিফোনি ও অনলাইন চ্যাট সার্ভিস প্রদান করে। জুম মূলত ব্যবহৃত হয় টেলিকনফারেন্সিং, টেলিকম্যুটিং, ডিসটেন্স এডুকেশন ও সােশ্যাল রিলেশনের জন্য।

Google Meet (গুগল মিট): জিমেইল একাউন্ট ধারীদের জন্য বিখ্যাত গুগল কর্তৃক একটি ফ্রি ভিডিও কনফারেন্সিং সেবা। এর মাধ্যমে ১০০ জন অংশ গ্রহণকারী নিয়ে মিটিং পরিচালনা বা অনলাইন ক্লাস করানাে যায়। এতে জুমের মতাে সময়ের কোনাে সীমাবদ্ধতা নেই।

Skype (স্কাইপি): এটি ফ্রি ভিওআইপি সফটওয়্যার। এ মেসেঞ্জার সফটওয়্যারটির মাধ্যমে অডিও ভিডিও চ্যাটিং সুবিধার পাশাপাশি কম্পিউটার থেকে কম্পিউটারে বিনামূল্যে এবং কম্পিউটার থেকে প্রচলিত টেলিফোনে স্বল্পমূল্যে বিশ্বব্যাপী কথা বলা যায়।

Viber (ভাইবার): ভাইবার (Viber) হলাে জাপানিজ কোম্পানি Rakuten কর্তৃক অপারেট কৃত একটি তাৎক্ষণিক বার্তা প্রেরক এবং ভিওআইপি অ্যাপ। ভাইবার এর ব্যবহারকারীকে বিনামূল্যে কথা বলা, এসএমএস আদান প্রদান, ছবি বা ভিডিও আদান- প্রদান, ভিডিও কলিং, গ্রুপ ম্যাসেজিং, লােকেশন শেয়ার প্রভৃতি সুবিধা প্রদান করে।

WhatsApp (হােয়াটসঅ্যাপ): হােয়াটসঅ্যাপ স্মার্টফোনের জন্য জনপ্রিয় একটি ম্যাসেঞ্জার। হােয়াটসঅ্যাপ এর মাধ্যমে চ্যাটসহ, ছবি আদান-প্রদান, ভিডিও ও অডিও মিডিয়া বার্তা আদান-প্রদান, ভিডিও ও অডিও কলিং প্রভৃতি করা যায়। ম্যাসেঞ্জারটি অ্যাপলের আইওএস, ব্ল্যাকবেরি, অ্যান্ড্রয়েড, সিমবিয়ান ও উইন্ডােজ ফোনে ব্যবহার করা যায়।

Facebook Messenger (ফেসবুক মেসেঞ্জার): ফেসবুক মেসেঞ্জার (সাধারণভাবে মেসেঞ্জার নামে পরিচিত) হলাে একটি জনপ্রিয় মেসেঞ্জার এবং প্ল্যাটফরম যা বিশ্বের অন্যতম একটি জনপ্রিয় ভিওআইপি সফটওয়্যার যার মাধ্যমে ইউজারগণ বিশ্বব্যাপী। ফ্রি মেসেজিং, অডিও-ভিডিও কলিং ও চ্যাটিং প্রভৃতি করতে সক্ষম হয়।

Imo (ইমাে): ইমাে (Imo) হলাে বিশ্বের একটি জনপ্রিয় মেসেঞ্জার অ্যাপ যার মাধ্যমে ইউজারগণ বিশ্বব্যাপী ফ্রি মেসেজিং ও অডিও-ভিডিও কলিং প্রভৃতি করতে সক্ষম হয়। এতে ইউজার অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করার জন্য ব্যবহারকারীর ফোন নম্বরের প্রয়ােজন হয়। মধ্যপ্রাচ্যসহ অন্যান্য দেশে কর্মরত আমাদের দেশের প্রবাসীদের কাছে দেশে যােগাযােগের জন্য ইমাে অ্যাপটি প্রথম পছন্দ।

অপেক্ষাকৃত নতুন পুরনো