আমাদের আজকের আলোচনার মূল বিষয় হচ্ছে প্রোগ্রামিং। তবে প্রোগ্রামিং সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের আগে জানতে হবে প্রোগ্রামিং কী? বা কাকে বলে, কেন প্রোগ্রামিং শিখবো, প্রোগ্রামিং এর কাজ কি? প্রোগ্রামিং ক্যারিয়ার কেমন, কিভাবে প্রোগ্রামিং শিখবো,প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ বা ভাষা কি? ও কোন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ শিখবো। এছাড়াও প্রোগ্রামিং করতে হলে কি কি শিখতে বা জানতে হবে ইত্যাদি!

প্রোগ্রামিং কী
প্রোগ্রামিং (programming)  একটি ইংরেজী শব্দ। এটি মূলত এসেছে প্রোগ্রাম (program) শব্দ হতে। প্রোগ্রাম শব্দের বাংলা আভিধানিক অর্থ হচ্ছে কার্যসূচী, কর্মসূচি বা অনূক্রম। আর এই প্রোগ্রাম গুলোকে ধারাবাহিক ভাবে সাজানো কে প্রোগ্রামিং বলে।

তাহলে আমরা সহজভাবে বলতে পারি, কোন কার্যসূচি বা প্রোগ্রাম-কে ধারাবাহিক ভাবে সাজানোর নাম-ই হচ্ছে প্রোগ্রামিং।

আমরা কোথাও ঘুরতে বা বেড়াতে গেলে আগে থেকেই একটি কার্যসূচি বা প্রোগ্রাম করি যে, ঘুরতে গিয়ে কি কি করবো বা কোন কাজের পরে কোন কাজ করবো ইত্যাদি এগুলো আমরা ধারাবাহিক ভাবে সাজাই। যার কারণে আমাদের সকল কাজ গুলোই সুশৃংখল ভাবে সম্পন্ন হয়।

তবে আমরা যে বিষয়ে আলোচনা করব তা হচ্ছে কম্পিউটার বা সফটওয়্যার প্রোগ্রামিং। কম্পিউটার বা মোবাইলের সফটওয়্যার গুলো হচ্ছে এমন একটি প্রোগ্রাম যার মাধ্যমে কম্পিউটার বা মোবাইল এর দ্বারা নির্দিষ্ট কাজ সঠিক ভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব হয়। মূলত এসব ডিজিটাল ডিভাইস এর কোন নিজস্ব বুদ্ধিমত্তা নেই আপনি যেভাবে কাজ করাবেন এরাও ঠিক সেইভাবেই কাজ করবে। আর এই কাজ করার নির্দেশনা গুলোই হচ্ছে প্রোগ্রাম বা সফটওয়্যার। আর এই সফটওয়্যার ( Software) গুলো তৈরি করার নামই হচ্ছে প্রোগ্রামিং।

তবে সমস্যা একটাই আপনি চাইলেই প্রোগ্রামিং করতে পারবেন না। কারণ প্রোগ্রামিং করার জন্য বিশেষ ভাষা জানার দরকার হয়। যেগুলো প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ নামে পরিচিত। কারণ কম্পিউটার আমাদের মত ভাষা বোঝে না। কম্পিউটারের জন্য রয়েছে নিজস্ব ভাষা। আর সেই ভাষায় আপনি যদি কম্পিউটার-কে না বোঝাতে পারেন তাহলে আপনি প্রোগ্রামিংও করতে পারবেন না। তাহলে আমরা সহজ ভাবেই বুঝতে পারে যে প্রোগ্রামিং শিখতে হলে আপনার সর্বপ্রথম জানতে হবে প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। এবং পরিপূর্ণ ভাবে প্রোগ্রামিং করতে হলে আপনাকে একাধিক প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ রপ্ত করতে হবে।

তাহলে উপরোক্ত আলোচনা থেকে আমরা সহজভাবে বুঝতে পারি, প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজের মাধ্যমে কম্পিউটারের জন্য কোন প্রোগ্রাম বা সফটওয়্যার রচনা করার নাম-ই হচ্ছে প্রোগ্রামিং (Programming is the name given to the creation of computer programs or software using programming languages.)

এবার আসি প্রোগ্রামিং ক্যারিয়ার সম্পর্কে। অনেকেই প্রোগ্রামিংকে ক্যারিয়ার হিসেবে নিতে চান কিন্তু সঠিক ভাবে না জানার কারণে তারা দ্বিধায় পড়ে গান যে প্রোগ্রামিংকে ক্যারিয়ার হিসেবে নেওয়ার সঠিক হবে না ভুল।

মূলত ক্যারিয়ার হিসেবে আপনি যেকোনো কাজ খেয়ে নেন না কেন যদি সফলতার সাথে সামনে আগাতে না পারেন তাহলে কোন ক্ষেত্রে আপনি লাভবান হতে পারবেন না। প্রোগ্রামিং এর ক্ষেত্রেও একই আপনি যদি নিজেকে একজন দক্ষ প্রোগ্রামার হিসেবে তৈরি করতে পারেন তাহলে আপনি অবশ্যই ক্যারিয়ার গড়তে পারেন প্রোগ্রামিংয়ে। কারণ বর্তমান সময় সবকিছু ডিজিটাল হচ্ছে সেই সাথে দক্ষ প্রোগ্রামার এর চাহিদাও দিন দিন বেড়ে চলেছে। এর সাথে আয় এর পরিমাণ ও বেশ ভালো।

তবে দক্ষতা এবং সফলতা অর্জন করতে হলে আপনি যে কাজই করেন না কেন তার উপর আপনার আগ্রহ থাকতে হবে এবং শুধুমাত্র আপনার উদ্দেশ্যে কোন কিছুকে ক্যারিয়ার হিসেবে নিলে কখনোই ভালো কিছু করতে পারবেন না। এ কারণে যদি আপনি মনে করে থাকেন প্রোগ্রামিং আপনার পেশার নয় নেশা তাহলে অবশ্যই আপনি প্রোগ্রামিং এর দিকে ঝুঁকতে পারেন। তবে একই সাথে আপনাকে অবশ্যই যথেষ্ট ধৈর্যশীল হতে হবে অল্পতে ভেঙে পড়লে চলবে না।

কারণ প্রোগ্রামিং হচ্ছে এমন একটা জিনিস যেখানে আপনাকে প্রথমে সমস্যা খুঁজে বের করতে হবে এবং এর পরে সেই সমস্যাগুলো কোডিং এর মাধ্যমে সমাধান করতে হবে। অনেক সময় দেখা যায় আপনার সমস্যা গুলো খুজে বের করতে পারছে না এবং সমাধান বুঝতে পারতেছেন কিন্তু কোডিং করতে পারছেন না এই সময় অনেকেই ধৈর্য হারিয়ে ফেলে এবং চিন্তা করে আমার দ্বারা কিছু হবে না। কিন্তু এটি সম্পূর্ণ একটি ভুল ধারণা। এটি হতে পারে আপনার যথেষ্ট পরিমান চর্চার অভাবে। এ রকম সমস্যার সম্মুখীন হলে মাথা ঠান্ডা রাখতে হবে এবং পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে!

এবার আসুন জেনে নেই কিভাবে প্রোগ্রামিং শিখতে পারি: প্রোগ্রামিং প্রধানত দুটি উপায়ে শিখতে পারেন। অনলাইন ভিত্তিক কোর্স করার মাধ্যমে বা প্রোগ্রামিং কোর্স এ ভর্তি হয়ে। কারণ আপনি শুধুমাত্র প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ মুখস্ত করে কখনো একজন প্রোগ্রামার হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে পারবেন না।

প্রোগ্রাম করতে হলে প্রথমে আপনাকে জানতে হবে বিভিন্ন ধরনের প্রোগ্রামিং ভাষা। তবে আপনি কোন প্লাটফর্মে কাজ করবেন সেটার উপর নির্ভর করে আপনি কোন ধরনের ভাষা শিখবেন। কারণ বহু ধরনের প্রোগ্রামিং ভাষা রয়েছে। যদি আপনার ইচ্ছা হয়ে থাকে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট করবেন তাহলে আপনি জাভাস্ক্রিপ্ট ইত্যাদি শিখতে পারেন। এবং একজন ওয়েব প্রোগ্রামার হতে হলে আপনাকে শিখতে হবে এইচটিএমএল, সিএসএস, জাভাস্ক্রিপ্ট, পাইথন ইত্যাদি ইত্যাদি।

নবীনতর পূর্বতন
close