ভাবসম্প্রসারন:

জোটে যদি মোটে একটি পয়সা

খাদ্য কিনিও ক্ষুধার লাগি;

দুটি জোটে যদি তবে একটিতে

ফুল কিনে নিও হে অনুরাগী।


ভাবসম্প্রসারণ : ক্ষুধা নিবৃত্তির জন্য মানুষের যেমন খাদ্যের প্রয়োজন, তেমনি মানসিক প্রশান্তির জন্য প্রয়োজন সৌন্দর্যবোধ। কেননা, শুধু শারীরিকভাবে পেটের ক্ষুধা নিবৃত্তি হলেই মানুষ সুস্থ সুন্দর জীবনযাপন করতে পারে না। তার জন্য মানসিক প্রশাস্তিরও গুরুত্ব রয়েছে।

বেঁচে থাকার জন্য আমাদের খাদ্যের প্রয়োজন রয়েছে। এটা কঠিন বাস্তবতা। ক্ষুধা নিয়ে কাজ করা যায় না, জীবন-যাপন করা যায়। না। এই ক্ষুধা নিবৃত্তির জন্য মানুষ দিনরাত কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে। সৃষ্টির সূচনা থেকে চলছে মানুষের এই নিরন্তর সংগ্রাম। কিন্তু শারীরিকভাবে পেটের ক্ষুধা মিটে গেলেও মানুষের মানসিক ক্ষুধা মেটে না। মানুষের জৈবিক প্রয়োজন যেমন রয়েছে তেমনি রয়েছে তার মানসিক প্রয়োজন। নান্দনিকতা, সৌন্দর্যবোধ, সুখানুভূতি এসব একজন মানুষের মনের খোরাক মেটায়। খাদ্য আমাদের প্রয়োজন, ক্ষুধানিবৃত্তি করা অবশ্যই প্রয়োজন, কিন্তু মানসিক চাহিদা, আনন্দ ও মনের খোরাকও কম প্রয়োজনীয় নয়। মানুষ তো আর জড় পদার্থ নয়। যেহেতু তার মধ্যে রয়েছে কল্পনা, সৃজনশীলতা, সৌন্দর্যচেতনা ও কল্যাণবোধ সেজন্য তার মধ্যে সুন্দরেরও অন্বেষা থাকতে হবে। এজন্যই খাদ্যের পর মানুষ একটু ফুলের সুবাসও খুঁজতে পারে এবং এটাই মানবিক।


বস্তুত শারীরিক সুস্থতা নির্ভর করে মানসিক সুস্থতার উপর। শাররিক সুস্থতার জন্য যেমন ক্ষুধা নিবৃত্তির প্রয়োজন, তেমনি মানসিক সুস্থতার জন্য সুন্দরের অন্বেষা করাও গুরুত্বপূর্ণ।

নবীনতর পূর্বতন
close