মোবাইল দিয়ে ফেসবুকের সকল ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট এড করুন এক ক্লিকে

বর্তমানের সকল সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ফেসবুক। ফেসবুক হচ্ছে সবচাইতে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া।আমাদের এই ফেসবুক একাউন্টে অনেক সময় অনেক ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট একসাথে একসেপ্ট করতে হয়।এগুলো একটি একটি করে কনফার্ম করা অনেক কষ্টসাধ্য এবং সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। তাই আমাদের অন্য উপায় খুঁজতে হয়।তবে কিছুদিন আগেও অনেক উপায় ছিল যেগুলো দ্বারা খুব সহজেই ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট গুলো একসাথে একসেপ্ট করা যেত। কিন্তু বর্তমানে সে সকল মেথড আর কাজ করছে না। আগে অনেক ওয়েবসাইট দ্বারা এবং অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে এসকল কাজ করা যেত। এবং বিভিন্ন জাভাস্ক্রিপ্ট ছিল যে গুলো দিয়ে খুব সহজেই ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট একসেপ্ট করে নেয়া যেত। কিন্তু তার অধিকাংশই বর্তমানে কাজ করে না। তাই আমি আপনাদের আজ দেখাব আপনার হাতের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কিভাবে আপনি খুব সহজে আপনার ফেসবুকের সকল ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট একসেপ্ট করবেন। ওয়েবসাইট বা এপ্লিকেশন ছাড়াই।
আজ আমি দেখাব কিভাবে মোবাইল দিয়ে জাভা স্ক্রিপ্ট ব্যবহার করবেন। এবং এক ক্লিকেই ফেসবুকের সকল ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট একসেপ্ট করবেন  তা দেখাবো।
1⃣নিচে দেওয়া কোড গুলো কপি করুন -
Javascript:var confirmBtns = document.getElementsByTagName('button');

for (var i = 0; i < confirmBtns.length; i++) {

    if (confirmBtns[i].innerHTML == "Confirm") {

        confirmBtns[i].click();

    }

}
 2⃣যে কোন একটি ব্রাউজার ওপেন করুন। ব্রাউজারের ডেস্কটপ মোড অন করুন। এবং যে ফেসবুক একাউন্টের রিকোয়েস্ট গুলো একসেপ্ট করবেন সেটি লগইন করুন।
3⃣এর পরে এই লিংকে যান- www.facebook.com/reqs.php
4⃣আপনার একউন্টে যত গুলো রিকোয়েস্ট আচ্ছে তার বড় লিষ্ট দেখতে পাবেন।স্ক্রল করে নিচে গিয়ে দেখতে পাবেন SeeMore সেটিতে ক্লিক করে আপনার লিষ্ট টি বড় করুন।কারন লিষ্টে যত বেশি রিকোয়েস্ট হবে তত বেশি রিকোয়েস্ট একসেপ্ট হবে।
5⃣আপনার ব্রাউজারের সার্চ বারের ক্লিক করুন এবং লিখুন-
javascript: এবং লেখাটির উপরে কপি করা কোড গুলো পেস্ট করুন।
ব্রাউজারের GO বাটনে ক্লিক করে রান করুন।দেখবেন ফ্রেন্ড রিকোয়েস্টগুলো এক্সেপ্ট হতে শুরু করেছে। এবং কয়েক সেকেন্ডের ভিতর রিকোয়েস্ট একসেপ্ট হয়ে যাবে।
🚫সতর্কতা-
একসাথে অনেক রিকোয়েস্ট এভাবে করলে এবং বার বার করলে আইডিতে প্রবলেম হতে পারে তাই সাবধানতা অবলম্বন করুন।
🔥ফেসবুকের সমন্ধে আরো টিপ্স পেতে চান?
আমাদের সাইটের ইমেইল সাবস্ক্রিপশন বক্সে আপনার মেইল দিয়ে সাবস্ক্রাইব করুন।আমরা মেইল করে জানিয়ে দিব আপনাকে আমাদের পোষ্ট সম্পর্কে!

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন SEO কি এর প্রোয়জনীয়তা এবং প্রকারভেদ (seo basic information)

SEO(Search Engine optimize) হচ্ছে কোন ওয়েবসাইট বা ওয়েব পেজকে সার্চ ইঞ্জিনে সাবমিট করা।যার মাধ্যমে সার্চ ইঞ্জিনগুলো আপনার ওয়েবসাইট থেকে তথ্য সংগ্রহ করবে এবং ব্যবহারকারীর সার্চ করা বিষয়বস্তুর সাথে যাচাই-বাছাই করে তা প্রদর্শন করবে।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের মূল কারণ হচ্ছে কোন ওয়েব পেজ বা ওয়েবসাইট কে তার উপযুক্ত ব্যবহারকারীর নিকট পৌঁছানো। কারণ আপনার ওয়েবসাইটটির নাম পৃথিবীর সকলে জানে না।তাই আপনি আপনার ওয়েবসাইটে কোন ধরনের সেবা প্রদান করছেন তা সবার জানাও সম্ভব নয়।কারণ আপনি কি নামে ওয়েবসাইট খুলেছেন তা সবাই জানে না।
আর এ কারণেই ব্যবহারকারী সরাসরি ওয়েবসাইট ভিজিট না করে বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিনের সার্চ করে তাদের কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য। যে তারা কোন ধরনের সেবা চায় তা লিখে সার্চ করলে যে সকল ওয়েবসাইট তাদের সার্চকৃত সেবা যারা প্রদান করে তাদের ওয়েবসাইটটি প্রদর্শন করে।
মনে করুন আপনি অনলাইনে একটি মোবাইল ফোনের দাম এবং এর ফিচার সম্পর্কে জানবেন। সেক্ষেত্রে আপনি নাও জানতে পারেন কাঙ্খিত মোবাইল ফোনটির রিভিউ কোন সাইটে আছে।তখন আপনি কি করেন আপনার মোবাইল ফোনটির মডেল ইত্যাদি যে সকল বিষয় জানতে চান তা লিখে সার্চ করেন।
সার্চ ইঞ্জিন মুহূর্তের মধ্যে কতগুলো রেজাল্ট আপনার সামনে তুলে ধরে।এবং তার ভিতরে যেটি সর্বোচ্চ যুক্তিযুক্ত মনে হয় সেই সাইটটি আপনি প্রবেশ করেন। 
এই যে আপনি সার্চ ইঞ্জিনে দেখে তাদের সাইটটিতে প্রবেশ করলেন।এই সাইটটি সার্চ ইঞ্জিনে দেখাতে অর্থাৎ আপনার সার্চ করা বিষয়বস্তুর সাথে মিলে গেলে আপনাররম সামনে তুলে ধরতে যে সকল কাজ করতে হয় তাকে বলা হয় এসইও বা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন।

তাহলে আমরা বুঝতে পারলাম এসইও হচ্ছে কোন ওয়েবসাইট বা ওয়েব পেজে থাকা বিষয়বস্তু সম্পর্কে গ্রাহক সার্চ করলে পরে তার সামনে আপনার ওয়েবসাইটটি যাতে প্রদর্শন করে তার জন্য আপনাকে যে সকল কাজ করতে হবে সেটাই হচ্ছে এসইও বা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন।
তাহলে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কি এ বিষয়ে বুঝলাম।
সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন দুই প্রকার -
⏩অন পেজ এসইও
⏩অফ পেজ এসইও
অন পেজ এবং অফ পেজ এসইও এর বিবরণ,
⏩অন পেজ SEO কী?

অন পেজ এসইও বলতে আমরা বুঝি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এর জন্য ওয়েবসাইট এর অভ্যন্তরে যে সকল কাজ করা হয় তাকে।উদাহরণস্বরূপ বলা যেতে পারে, রোবট টেক্সট, মেটা কী-ওয়ার্ড, মেটা টাইটেল ইত্যাদি সেট করা কে অন পেজ এসইও বলা হয়।
এক্ষেত্রে কিওয়ার্ড রিসার্চ একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এই কিওয়ার্ড নির্নয় করে আপনার সাইটটি কোন বিষয় এর উপর  তৈরি এবং আপনার সাইটে কোন ধরনের কনটেন্ট আছে।তাই সঠিক কিওয়ার্ড নির্ণয় করা একান্তই জরুরী একটি বিষয়।  
অফ পেজ SEO কি?

অফ পেজ এসইও বলতে বুঝানো হয়েছে যে সকল কাজ ওয়েবসাইট বাইরের কাজ কে। অর্থাৎ ওয়েব সাইটের প্রচারণা চালানোর জন্য অন্যান্য সাইটে যে সকল কাজ করা হয় তাকে। যেমন, ফোরাম,সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ার, ব্লগিং, ডিরেক্টরি সাবমিট ইত্যাদি।
মূলত এ সকল কাজ করা হয় ওয়েবসাইট এর প্রচারণার জন্য। এবং গুগোল  ওয়েবসাইটটি কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা নির্ধারণ করে আপনার ওয়েবসাইটের লিঙ্ক  অন্যান্য কতগুলো ওয়েবসাইটে আছে তার উপর নির্ভর করে।তবে আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে আপনি যে সাইটে আপনার সাইটের লিংক শেয়ার করলেন সিটি কতটা জনপ্রিয়। এবং গুগলের কাছে তার অবস্থান কি রকম। কারন যেসকল সাইট গুগলে রেংক করেন এরকম সাইটের লিংক শেয়ার করলে আপনার উপকারের চাইতে ক্ষতি হবে।
এক্ষেত্রে উদাহরণস্বরূপ বলা যায়,
আপনার ব্যাপারে যেকোনো কথা গ্রামের কয়েক জন সাধারণ মানুষ বলার চাইতে। গ্রামের মাতবর একা বললে সেটি বেশি গ্রহণযোগ্য হবে।
এর অর্থ হচ্ছে গুগলে যে সকল সাইট রেংক করেছে এবং ভালো পর্যায়ে আছে। সে সকল সাইটে আপনার  ব্যাক লিংক তৈরি করতে পারলে সার্চ ইঞ্জিন আপনাকে বেশি গুরুত্ব দেবে।
⏩এসইও আবার দুই ভাবে করা যায়,
১-পেইড SEO।
২-অর্গানিক SEO।
⏩পেইড SEO-
পেইড   অর্থাৎ নাম শুনে আপনি বুঝে গিয়েছেন যে এটি করতে হলে আপনাকে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ প্রদান করতে হবে।এবং আপনার কীওয়ার্ড এর সাথে মিললে সার্চ ইঞ্জিন সবার উপরে আপনার রেজাল্ট দেখাবে।
⏩অর্গানিক SEO-
সার্চ ইঞ্জিন এর সকল নিয়ম কানুন মেনে জে এসইও করা হয় তাকে অর্গানিক এসইও বলে।
তাহলে আমরা পোস্টটি থেকে বুঝতে পারলাম এস ই ও কি। কেন করা হয়। এবং এর প্রক্রিয়া সম্পর্কে।
পরবর্তীতে আরো বিস্তারিত আলোচনা করা হবে এসইও সম্পর্কে।

Brave Browser এ কাজ করে কিভাবে পেমেন্ট নিবেন A to Z

Brave Browser এ কাজ করার জন্য আমি আপনাদের গত পোস্টে বলেছিলাম।অনেকে জয়েন করেছেন।আবার অনেকে করছেন না এটা ভেবে সত্যি কি টাকা দেবে!আচ্ছা বলুন তো পেমেন্ট না দিলে আপনাদের মাঝে শেয়ার করে আমার লাভ কি?কোন লাভ নেই।এটি থেকে আমি গত মাসে ৪০+ ডলার আয় করেছি।কিন্তু আয় আরো বেশি হতো কিন্তু সময় দিতে পারিনাই বলে আয়ের পরিমান টা কম ছিল।যাই হোক আমি আপনাদের আজ দেখাবো কিভাবে আপনারা Brave Browser থেকে আয় করবেন এবং পেমেন্ট নিবেন তার A to Z.
আপনারা যারা এখনো জয়েন করেন নাই তারা এই লিংক থেকে এখনি জয়েন করুন।
⏩উপরের লিংক হতে brave browser টি ডাউনলোড করুন।
⏩লিংকে প্রবেশ করার পরে উপরে তিন ডট অপশন দেখতো পাবেন।সেটিতে ক্লিক করে Content creator সিলেক্ট করুন Sing Up এবং sing in অপশন আসবে।সেখান থেকে Singh up ক্লিক করে ফাকা ঘরে আপনার জিমেইলটি দিন।এবং continue ক্লিক করুন।
⏩আপনার জিমেইল চেক করুন দেখবেন  একটি লিংক পাঠিয়েছে।সেটি ক্লিক করে মেইল ভেরিফাই করে নিন।
⏩ব্রাউজারটি ডাউনলোড হলে ওপেন করুন।brave.com ↔ content creator↔sing in↔যে জিমেইল টি দিয়ে sing up করেছিলেন সেটি দিয়ে sing in করুন।লগিন লিংক আপনার জিমেইলে পাবেন।
বুঝতে কোথায়ও সমস্যা হলে পোস্টটি দেখুন- click hare
লগিন করা হলে আপনার সামনে এরকম একটি পেজ আসবে।

⏩ছবিতে দেখছেন 22.26  BAT এটি আপনার আর্নিং।
⏩Refaral promo stats আপনার রেফারেলে কতজন জয়েন করেছে তার ডিটেলস।
⏩এখানে একটি আপহোল্ড একাউন্ট কানেক্ট করুন।
⏩আপহোল্ড একাউন্ট খুলতে ক্লিক করুন- click hare

⏩Add channel এখানে একটি  ওয়েবসাইট অথবা ইউটিউব চ্যানেল এড করতে হবে।ওয়েব সাইট থাকলেও  ইউটিউব চ্যানেল এড করাই উত্তম কারন এটি আপনার জন্য সহজ হবে।
Refaral link  লেখাতে ক্লিক  করুন।তাহলে আপনার রেফারেল লিংক কপি হয়ে যাবে।
আপনি লিংক টি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া  এবং আপনার বন্ধুদের শেয়ার করার মাধ্যমে তাদের ব্রাউজার টি ডাউনলোড করে ১ মাস ব্যবহার করলেই পাবেন ৫ ডলার প্রতি ডাউনলোডে যা ৪০০-৪৫০ টাকার সমান।
⏩এছাড়া ব্রাউজিং করেও আয় করতে পারবেন।
⏩১ এ  ক্লিক করুন  এবং ২ নং আপশনের জায়গায় creat wallet অপশন আসবে। সেটিতে ক্লিক করে আপনি Show add অন করে দিন।তাহলে মাসের ২৫ তারিখ আপনার এখানে কয়েন জমা হবে।সেটি আপনার মেইন  একাউন্টে টিপস করার মাধ্যমে নিতে পারবেন।
⏩আপনার ব্রেভ একাউন্টের ব্যালেন্স প্রতি মাসের ৯ তারিখ আপনার আপহোল্ড একাউন্টে ট্রান্সফার করে দিবে তারা।
⏩আপ হোল্ড হচ্ছে একটি ক্রিপটোকারেন্সির  ওয়ালেট।সেখান থেকে আপনি কিভাবে টাকা বিকাশে নিবেন তা পরবর্তী টিউটোরিয়ালে দেখিয়ে দেওয়া হবে।

এন্ড্রয়েড ফোনের মাধ্যমে ফেসবুক পেজে সবাইকে একসাথে ইনভাইট করুন কোন প্রকার স্ক্রিপ্ট ছাড়াই

আজ আমি আপনাদের শিখাব কিভাবে এন্ড্রয়েড ফোনের মাধ্যমে ফেসবুক পেজে সবাইকে একসাথে ইনভাইট করব কোন প্রকার স্ক্রিপ্ট ছাড়াই। যেকোনো ধরনের বিজনেস পেজ বা ওয়েবসাইট পেজ হোক না কেন পেজে লাইক না থাকলে পেইজের কোন মূল্যই নেই।তবে পেইজে লাইক বাড়াতে হলে পেজ বুস্ট করা বা বন্ধুদের ইনভাইট করা ছাড়াও অটো লাইক সিস্টেম চালু ছিল কিন্তু বর্তমানে সেটি কাজ হয় না।তাই শুধুমাত্র বুস্ট করা বা ফ্রেন্ডদের ইনভাইট করার মাধ্যমেই পেজে লাইক বাড়ানো সম্ভব।কিন্তু বুস্ট করা সবার পক্ষে সম্ভব নয়।

এর প্রধান কারণ হচ্ছে ফেসবুক পেজ বুস্ট করতে অনেক টাকা লাগে।এরপরে টাকা থাকলেই বুস্ট করা সম্ভব হয় না কেননা বুস্ট করতে প্রয়োজন পড়ে ক্রেডিট কার্ডের।কারণ ফেসবুক কোম্পানি আমাদের দেশীয় পেমেন্ট মেথড যেমন বিকাশ রকেটে ইত্যাদি সাপোর্ট করে না।বুষ্ট করতে হলে চাই ইন্টার্নেশনাল পেমেন্ট মেথড যা সবার কাছে থাকে না।
তাই এর আগে আমরা বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে অটো লাইক কিনে ফেসবুক পেইজ বড় করতাম।কিন্তু বর্তমানে সে পদ্ধতি ও বন্ধ কারণ অটো লাইক এর স্ক্রিপ্ট বর্তমানে কাজ করছে না।এটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।আর একারণেই বাকি রইল বন্ধুদের ইনভাইট করার মাধ্যমে পেজের লাইক বৃদ্ধি করা।কিন্তু একেক জনকে ইনভাইট করা যথারীতি কষ্টকর এবং বিরক্তিকর ও বটে।তাই আমি আপনাদের দেখাবো কিভাবে এন্ড্রয়েড ফোন থেকেই আপনি আপনার ফেসবুক ফ্রেন্ডলিস্ট এর সকল বন্ধুদের একসাথে ইনভাইট পাঠাবেন।এবং এর সাথে আপনি তাদের মেসেজ করতে পারবেন পেজে লাইক দেওয়ার জন্য।

সবাইকে একসাথে ইনভাইট এবং মেসেজ পাঠাতে আপনার প্রয়োজন পড়বে এমন একটি অ্যান্ড্রয়েড ব্রাউজার যেটি ডেক্সটপ মোড সাপোর্ট করে।
উদাহরণস্বরূপ আপনি ক্রোম ব্রাউজার ব্যবহার করতে পারেন।এটি নিয়ে চিন্তার কোন কারণ নেই কারণ অধিকাংশ ব্রাউজারেই ডেক্সটপ মোড সাপোর্ট করে।
তাহলে চলুন কাজ শুরু করে দেয়া যাক,
প্রথমে ব্রাউজারটি ওপেন করুন এবং ডেক্সটপ মোড অন করুন,
ডেস্কটপ মুড অন করা হয়ে গেলে।
web.facebook.com এই লিংকে গিয়ে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লগইন করুন।
এর পরে আপনি যে পেইজে সবাইকে ইনভাইট করবেন সেই পেজটিতে যান।
পেজে গিয়ে আপনি ইনভাইট অপশন এ যান।
ইনভাইট অপশন এ গেলে আপনার সামনে এরকম একটি পপ-আপ আসবে এবং সেখানে আপনার ফেসবুক একাউন্ট এর কতজন বন্ধু আছে এবং তাদের নাম সহ লিস্ট আসবে।এখান থেকে আপনি চাইলে ম্যানুয়ালি সিলেক্ট করতে পারেন আবার চাইলে সবাইকে একসাথে সিলেক্ট করে দিতে পারেন।সবাইকে একসাথে সিলেক্ট করতে স্ক্রিনশটে দেখানো ১ নং অপশন অর্থাৎ সিলেক্ট অল ক্লিক করুন।এর পরে আপনি যদি চান যে সবাইকে একই সাথে মেসেজ পাঠাবেন পেজে লাইক দেওয়ার জন্য তাহলে ২ নং অপশনে টিক চিহ্ন দিন। (যদি মেসেজ পাঠাতে না চান তাহলে ২ নং অপশন ব্যবহার করবেন না।)উপরুক্ত স্টেপ গুলো শেষ হলে ৩ নং অপশন অর্থাৎ সেন্ড বাটনে ক্লিক করুন।তাহলেই কাজ শেষ।
আপনার সকল বন্ধুদের নিকট পেইজে লাইক দেওয়ার জন্য ইনভাইটেশন চলে যাবে।এবং মেসেজ অপশনে ক্লিক করে থাকলে তাহলে সবার কাছে মেসেজ ও চলে যাবে লাইক দেওয়ার জন্য।
ধন্যবাদ সবাইকে পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্য।নিত্য নতুন টিপস পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।আমাদের সকল পোষ্টের আপডেট ইমেইলের মাধ্যমে পেতে হলে আমাদের ওয়েবসাইটের নিচের দিকে ইমেইল সাবস্ক্রিপশন অপশনে আপনার ইমেইল টি দিয়ে সাবস্ক্রাইব করুন।অথবা ফেসবুকে আপডেট পেতে হলে আমাদের পেইজে লাইক দিয়ে রাখুন।নতুন কোন পোস্ট করা হলেই আমাদের পেজে আপডেট করা হবে।


কিভাবে একটি আপহোল্ড একাউন্ট খুলবেন এবং ভেরিফাই করবেন

এর আগে আমি আপনাদের একটি ইনকাম অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জন সম্পর্কিত একটি পোস্ট করেছিলাম।যে একটি ব্রাউজার ব্যবহার করে কিভাবে মাসে ২০০০-৩০০০ হাজার টাকা কোন কাজ না করেই ইনকাম করবেন।তো সেটার থেকে পেমেন্ট পাওয়ার জন্য দরকার একটি আপ হোল্ড অ্যাকাউন্ট তৈরি করা এবং সেটা ভেরিফাই করার।বিশেষত আজকের পোস্টটি সেকারণেই করা হয়েছে।কারণ আপনি একটি অাপ হোল্ড একাউন্ট ভেরিফাই করা ছাড়া কোনভাবেই এর থেকে পেমেন্ট পাবেন না।

তবে আপহোল্ড একাউন্ট ভেরিফাই করা খুবই সহজ। তাই ঘাবড়াবার কোন কারণ নেই।
Brave ব্রাউজার এ একাউন্ট করতে এই পোস্টটি ফলো করুন
আপহোল্ড একাউন্ট ভেরিফাই করতে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স অথবা ন্যাশনাল আইডি কার্ড লাগবে। আপনার নিজের যদি এরকম কোন ডকুমেন্ট না থাকে তাহলে আপনি পরিবারের অন্য কারো আইডি কার্ড বা ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়ে করতে পারেন।
প্রথমে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে এখানে প্রবেশ করুন।
উপরোক্ত লিংকে প্রবেশ করলে আপনার সামনে এরকম একটি পেজ আসবে।
⭕প্রথম ঘরে আপনার ই-মেইল এড্রেসটি দিন।
⭕দ্বিতীয় ঘরে একটি পাসওয়ার্ড দিন। পাসওয়ার্ডটি অবশ্যই একটু কঠিন ভাবে দিবেন যেমন বড় হাতের, ছোট হাতের এবং সিম্বল ও নম্বরের মিশ্রণে তৈরি করবেন (উদাহরণস্বরূপ Aaaa@1223)।
⭕পরবর্তী করে দেখতে পারেন লেখা আছে ★an individual  ★ an business 
আপনি an individual সিলেক্ট করে দিন।
⭕এরপরে বলতে হয় দেখতে পাবেন আপনার দেশ সিলেক্ট করতে বলেছে আপনি যে দেশের নাগরিক সেই দেশ সিলেক্ট করে দিন।
⭕এরপরে এগ্রি টার্মস এন্ড কন্ডিশন লেখার পাশে টিক চিহ্ন দিন। এবং সাইন আপ বাটনে ক্লিক করুন। আপনার ইমেইলে একটি লিংক চলে যাবে।যেটাতে ক্লিক করার মাধ্যমে আপনার মেইলটি কনফার্ম করুন।
এর পরে-
আপনার তথ্যগুলো যুক্ত করুন।অবশ্যই ভেরিফাইয়ের জন্য যে আইডি কার্ড ব্যবহার করবেন। সেই আইডি কার্ড অনুযায়ী তথ্য দিন।সমস্ত তথ্য সেভ করা হয়ে গেলে পরে আপনার সামনে একটি ভেরিফিকেশনের একটি অ্যালার্ট দেখাবে এরপরে। সেটিতে ক্লিক করে আপনি আইডি কার্ড সাবমিট করতে চান নাকি ড্রাইভিং লাইসেন্স আপলোড করতে চান তা সিলেক্ট করুন। এর পরের আইডি কার্ডের দুই পিঠের দুইটি ছবি এবং আইডি কার্ড এর মালিকের একটি ছবি লাগবে।এগুলো দেওয়ার সব দেখিয়ে দেয়া হয়েছে আপনি সেই অনুযায়ী সেট করে দেন। তাহলেই দুই এক দিনের ভেতর আপনার একাউন্ট ভেরিফাই হয়ে যাবে।ছবি এবং আইডিকার্ড বা ড্রাইভিং লাইসেন্সের ফটো গুলো ক্লিয়ার করে তোলার চেষ্টা করবেন। তাহলে খুব দ্রুত ভেরিফাই হবে। 
এরপরে আপনি আপহোল্ড একাউন্ট টি আপনার brave  একাউন্টে কানেক্ট করতে প্রথমে আপনার ব্রেব একাউন্ট লগইন করুন। এবং কানেক্ট অ্যাপ হোল্ড এই অপশনে গিয়ে আপনার দেব অ্যাকাউন্টটি লগ ইন করে অথরাইজড করে নিন। অথরাইজড করা হয়ে গেলে কিছুক্ষনের ভিতর আপনার আসল একাউন্ট কানেক্ট হয়ে যাবে।
এর পরে আপনি দেব একাউন্ট এর ভিতরে রেফারেল লিঙ্ক পাবেন সেটি দিয়ে আপনি যতজন জয়েন করাতে পারবেন প্রত্যেক জনের থেকে ৩০ BAT তো কেন করে পাবেন যার বর্তমান মূল্য 12 ডলারের উপরে। এবং প্রতি মাসের ৮ তারিখে আপনার আপ হোল্ড একাউন্টে ট্রান্সফার করে দেয়া হবে।তবে রেফারেল বোনাস পেতে হলে অবশ্যই আপনার রেফারেল এ যে জয়েন করবে তাকে ৩০ দিন এই ব্রাউজারটি ব্যবহার করতে হবে।